‘আমার ছাওয়ালডারে আইনা দেও’ অভিবাসী ছেলের জন্য গোপালগঞ্জে মায়ের অবিরাম কান্না

আগস্ট ৩১, ২০১৫

আপনি দেখছেন: দেশের খবর >> গোপালগঞ্জ, প্রধান খবর, প্রবাস, স্থানীয় >> ‘আমার ছাওয়ালডারে আইনা দেও’ অভিবাসী ছেলের জন্য গোপালগঞ্জে মায়ের অবিরাম কান্না

‘আমার মফিজুর আমারে কইছে, মা আমি মঙ্গল-বুধবারের মধ্যে নৌকায় লিবিয়া থেকে ইতালি যাব। এর পর আমার বাজানের আর কোনো খবর নাই।’

‘ছোটবেলায় মফিজুরের বাবা মারা গেছে। অনেক কষ্ট কইরা আমি আমার এই ছাওয়ালডারে (ছেলে) বড় করছি। তিন বছর আমি ওর মুখ দেহি না। তোমরা যে ভাবে পারো আমার ছাওয়ালডারে আইনা দেও।’ এমন আকুতি গোপালগঞ্জের কোটালীপাড়া উপজেলার এক মায়ের।

জানা গেছে, গোপালগঞ্জের কোটালীপাড়া উপজেলার মাঝবাড়ী গ্রামের মরহুম বেলায়েত হোসেন দাড়িয়ার ছেলে মফিজুর রহমান তিন বছর আগে লিবিয়া যায়। গত বৃহস্পতিবার মফিজুর রহমান নৌপথে লিবিয়া থেকে ইতালি যাবার কথা তার মাকে ফোন করে জানান। এরপর থেকে তার সাথে আর কোনো যোগাযোগ নেই। পরিবারের লোকজন আশঙ্কা করছেন, বৃহস্পতিবার ভূমধ্যসাগরে লিবিয়া উপকূলে অভিবাসী নিয়ে ডুবে যাওয়া নৌকায় মফিজুর রহমানও ছিলেন। আর এ আশঙ্কা থেকেই মায়ের অনবরত কান্না।

পাড়া-প্রতিবেশী, আত্মীয়স্বজন শত চেষ্টা করেও থামাতে পারছে না মফিজুরের মায়ের কান্না। ছেলের জন্য মা মহুরোন বেগম এখন পাগলপ্রায়। ছেলের সন্ধান পেতে মহুরোন বেগম গোপালগঞ্জ জেলার কোটালীপাড়া উপজেলার মাঝবাড়ী গ্রামের বিভিন্ন লোকের দ্বারে দ্বারে ঘুরছে।

  • হায়দার হোসেন, গোপালগঞ্জ

 

Comments are closed.