আশাশুনির খাজরা ইউপি চেয়ারম্যান ডালিমের বিরুদ্ধে আবারও মামলা

প্রতিনিধি, সাতক্ষীরা:  গভীর রাতে ঘরে ঢুকে মারপিট ও টাকা চুরির অভিযোগ এনে সাতক্ষীরার আশাশুনি উপজেলার খাজরা ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান যুবলীগ নেতা শাহনেওয়াজ ডালিমের বিরুদ্ধে থানায় মামলা হয়েছে।

উপজেলার দুর্গাপুর গ্রামের মৃত শহর আলী গাজির ছেলে আফছার আলী গাজী বাদী হয়ে চেয়ারম্যান ডালিমসহ সাতজনের নাম উল্লেখ করে বুধবার রাতে আশাশুনি থানায় এ মামলা দায়ের করেন।

মামলার অভিযোগে বলা হয়, উপজেলা যুবলীগের যুগ্ম-আহ্বায় চেয়ারম্যান শাহনেওয়াজ ডালিম, পিরোজপুর গ্রামের রিপন ও রায়হান, দুর্গাপুর গ্রামের ওসমান, মহাসিন ও সাইফুল এবং গদাইপুর গ্রামের কালাম গত ১২ জুন রাত ২টার দিকে ধারালো দা, বাঁশের লাঠি, হকিস্টিক, চাইনিজ কুড়াল ও হাতুড়িসহ আফছার আলীর ঘরে ঢুকে। আসামিরা তাকে ঘুম থেকে ডেকে চেয়ারম্যান ডালিমের কাছে নিয়ে যেতে চায়। রাজি না হওয়ায় আসামিরা তাকে টেনেহিঁচড়ে ঘরের বাইরে রাস্তায় নিয়ে আসে। এসময় চেয়ারম্যান ডালিম সেখানে উপস্থিত হয়ে আফছার আলীকে মারপিট শুরু করেন এবং অন্যদেরকেও মারপিট করার হুকুম দেন। মারপিটে আফছার আলী মারাত্মক আহত হন। এক পর্যায়ে আসামিরা ঘরের ঢুকে বাকসে রক্ষিত ২৫ হাজার টাকা ছিনিয়ে নেয়। আসামিরা এক লাখ টাকা না দিলে ভবিষ্যতে তার উপর আরো অত্যাচার হবে বলে শাসিয়ে যায়।

আশাশুনি থানার খারপ্রাপ্ত কর্মকর্মা মো. সাহেদুল ইসলাম শাহিন চেয়ারম্যান ডালিমের নামে মামলা দায়েরের ঘটনা স্বীকার করে বলেন, আসামিদের গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে।

জানা গেছে, শাহনেয়াজ ডালিম আগের দফায় খাজরা ইউনিয়নের চেয়ারম্যান থাকার সময় টাকা আত্মসাৎ করার ঘটনায় নারী সদস্য নাছিমা খাতুন প্রতিবাদ করলে তাকে মারপিট করে হাত-পা ভেঙে দেন ডালিম। এ ঘটনায় ডালিমের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করেন নাছিমা খাতুন। ডালিম এ মামলার চার্জশিটভুক্ত আসামি।

খাজরা সরকারি প্রাইমারি স্কুলের শিক্ষক নিয়োগের ঘটনায় বাধা প্রদান করলে ডালিম স্কুলের প্রধান শিক্ষক রাহাজান আলীকে থাপ্পড় মারেন এবং তার লোকজন দিয়ে বেদম মারপিট করে জখম করেন। এ ঘটনায়ও ডালিমের বিরুদ্ধে মামলা হয়। তার বিরুদ্ধে চার্জশিটও দেওয়া হয়েছে।

খাসজমি দখল থেকে শুরু করে বহু অভিযোগ রয়েছে ডালিমের বিরুদ্ধে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *