ঈশ্বরদীতে ৭ হাজার ইয়াবাসহ নারী আটক

মে ৭, ২০১৭

আপনি দেখছেন: দেশের খবর >> পাবনা, প্রধান খবর, স্থানীয় >> ঈশ্বরদীতে ৭ হাজার ইয়াবাসহ নারী আটক

স্বপন কুমার কুন্ডু, ঈশ্বরদী (পবনা): ঈশ্বরদীর ফতেমোহাম্মদপুর বিহারি বাজার এলাকায় রবিবার সকালে অভিযান চালিয়ে মাদক ব্যবসায়ী আলিয়া ভুলুর স্ত্রী ফিরোজা বেগমের (৩৩) বাড়ি হতে ৬ হাজার ৮০০  ইয়াবা বড়ি উদ্ধার করেছে আমবাগান ফাঁড়ি ও ঈশ্বরদী থানা পুলিশ। ফিরোজা বেগমকে পুলিশ গ্রেফতার করেছে। তবে আলিয়া ভুলু পালিয়ে যায়। আলিয়া ভুলু ঈশ্বরদীর কুখ্যাত মাদক ব্যবসায়ী। গত বছরের ২০ সেপ্টেম্বর রাতে ঈশ্বরদী শহরের রহিমপুর মোড় থেকে ডিবি পুলিশ আলিয়া ভুকুকে গ্রেফতার করেছিলেন।

ঈশ্বরদীতে ৬ হাজার ৮০০ পিচ ইয়াবাসহ ১ নারী আটক|

ঈশ্বরদী আমবাগান পুলিশ ফাঁড়ির পরিদর্শক আব্দুল মজিদ জানান, রবিবার সকাল সাড়ে ৮টার দিকে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে তিনি, ঈশ্বরদী থানার অফিসার ইনচার্জ আব্দুল হাই তালুকদার ও সহকারী শহর উপ-পরিদর্শক (টিএসআই) মতিয়ার রহমানসহ পুলিশের একটি দল ফতেমোহাম্মদপুর লোকোসেড এলাকায়  অভিযান চালায়। এ সময় বিহারি বাজার সংলগ্ন আলিয়া ভুলুর বাড়িতে তল্লাশি চালানো হয়। ওই বাড়ির একটি ঘরে পলিথিনের ব্যাগে রক্ষিত ইয়াবাগুলো উদ্ধার এবং আলিয়া ভুলুর স্ত্রী ফিরোজাকে গ্রেপ্তার করা হয়। স্ত্রী গ্রেপ্তার হলেও আলিয়া ভুলু  পালিয়ে যায়।

পুলিশ আরো জানায়, আলিয়া ভুলুসহ ১০-১৫ জন মাদক ব্যবসায়ীকে সাথে নিয়ে একটি সিন্ডিকেট তৈরি করে দীর্ঘদিন ধরে ফতেমোহম্মদপুর, বখশীর চক, ভূতেরগাড়ি, পাতিলাখালি ও পশ্চিমটেংরীসহ বিভিন্ন স্থানে মাদক ব্যবসা করে আসছে। এর আগেও তাকে কয়েকদফা গ্রেফতার করা হয়। আইনের ম্যারপ্যাচে জেল হতে বের হয়ে সে আবার মাদক ব্যবসা শুরু করে।

এ ব্যাপারে ঈশ্বরদী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আব্দুল হাই তালুকদার জানান, গ্রেফতারকৃত কামাল হোসেন ওরফে আলিয়া ভুলুর স্ত্রীও মাদক ব্যবসার সাথে জড়িত। তাকে গ্রেফতার করে প্রচলিত আইনে মামলা হচ্ছে। এটাই ঈশ্বরদীতে আটককৃত সর্ববৃহৎ ইয়াবার চালান বলে তিনি জানিয়েছেন।

 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *