চার দফা দাবিতে প্রাণিসম্পদ এ.আই টেকনিশিয়ানদের প্রতীকী অবস্থান ধর্মঘট

এপ্রিল ১৯, ২০১৭

আপনি দেখছেন: দেশের খবর >> কৃষি, পাবনা, প্রধান খবর, স্থানীয় >> চার দফা দাবিতে প্রাণিসম্পদ এ.আই টেকনিশিয়ানদের প্রতীকী অবস্থান ধর্মঘট

স্বপন কুমার কুন্ডু, ঈশ্বরদী (পাবনা): চার দফা দাবি আদায়ের লক্ষে ঈশ্বরদী শহরের জেলা কৃত্রিম প্রজনন কেন্দ্রের সামনে মঙ্গলবার সকাল ১১টা হতে ১২টা পর্যন্ত পাবনা ও সিরাজগঞ্জ জেলার সকল প্রাণিসম্পদ এ.আই টেকনিশিয়ানরা এক ঘন্টাব্যাপী প্রতীকী অবস্থান ধর্মঘট পালন করেছেন। পরে তারা সহকারি পরিচালক ডাক্তার এসএম আবুল কাশেম জিন্নাহর কাছে সিমেন ও তরল নাইট্রোজেন সরবরাহ না দেওয়ায় স্মারকলিপি প্রদান করেন।

ঈশ্বরদীতে ৪ দফা দাবিতে প্রাণিসম্পদ এ.আই টেকনিশিয়ানদের প্রতীকী অবস্থান ধর্মঘট।

তাদের দাবির মধ্যে রয়েছে, প্রতি ইউনিয়নে এ.আই টেকনিশিয়ান পদ সৃষ্টির মাধ্যমে কর্মরতদের এই পদে আত্মীকরণ,  আত্মীকরণ না হওয়া পর্যন্ত শূন্য পদে নিয়োগের ব্যবস্থাকরণ, কৃত্রিম প্রজনন নীতিমালা লংঙ্ঘণ করে বেসরকারি সংস্থাগুলো যে সকল কর্মী ৭/১৫/৩০ দিনের প্রশিক্ষণ দিয়ে মাঠে ছেড়ে দিয়েছে, অবিলম্বে তাদের প্রত্যাহারের ব্যবস্থাগ্রহণ, কৃত্রিম প্রজনন সংক্রান্ত নীতি নির্ধারনী কমিটিতে সমিতির প্রতিনিধি অর্ন্তভূক্ত করা এবং একই ইউনিয়নে একাধিক এ.আই টেকনিশিয়ান নিয়োগ বন্ধ করা।

এ সময় আন্দোলনকারীরা জানান, যাদের একই ইউনিয়নে একাধিক নিয়োগ দেওয়া হয়েছে তাদেরকে অন্য যে সকল ইউনিয়নে এ.আই টেকনিশিয়ান নিয়োগ দেওয়া হয়নি ওই সকল ইউনিয়নে সরিয়ে নিয়ে নিয়োগের ব্যবস্থা করতে হবে।

বাংলাদেশ প্রাণিসম্পদ এ.আই টেকনিশিয়ান পাবনা জেলার সভাপতি নুরুল ইসলামের সভাপতিত্বে প্রতীকী অবস্থান ধর্মঘট ও পথসভায় বক্তব্য রাখেন, সিরাজগঞ্জ জেলা এ.আই সভাপতি আতাউর রহমান, সম্পাদক জুয়েল রানা, এ.আই রেজাউল ইসলাম, মনিরুল ইসলাম, আশরাফুল ইসলাম, ইমদাদুল হক, আব্দুল খালেক, বদিউজ্জামান, আব্দুস সালাম, মাফিকুল ইসলাম ও ইমরান হোসেন প্রমুখ। অনুষ্ঠান সঞ্চালনা করেন বাংলাদেশ প্রাণিসম্পদ এ.আই টেকনিশিয়ান পাবনা জেলার সাধারণ সম্পাদক মোঃ রেজাউল করিম।

বক্তারা বলেন, দুই জেলায় প্রায় ২৭০ জন এ.আই টেকনিশিয়ান দীর্ঘদিন যাবৎ বিশ্বস্ততা ও দায়িত্বের সাথে  স্বেচ্ছাসেবী হিসেবে কাজ করছেন। কিন্তু আমাদের কাজের সঠিক মূল্যায়ন করা হচ্ছেনা। এ.আই টেকনিশিয়ানরা শুধু কৃত্রিম প্রজনন সেবা দিয়েই ক্ষান্ত নয়, তারা প্রাণিসম্পদ অধিদপ্তরের সকল কার্যক্রম দক্ষতার সাথে করে আসছেন। রোদ, বৃষ্টিতে ভিজে এ.আই টেকনিশিয়ানরা দায়িত্বের সাথে মাঠে-ময়দানে গ্রামে গ্রামে চাষিদের সেবা দিচ্ছেন।

তারা আরও বলেন, ভয়ভীতি দেখিয়ে লাভ হবেনা এবং আমাদের বাদ দিয়ে নতুন কাউকে চাকুরিতে নিয়োগ দেয়া যাবেনা। অবিলম্বে এ.আই টেকনিশিয়ানদের জাতীয়করণ করা না হলে বৃহত্তর আন্দোলন গড়ে তোলা হবে। আগামী পহেলা মে থেকে আমাদের ন্যায্য দাবি পূরণ না হওয়া পর্যন্ত সারাদেশে অনির্দিষ্টকালের জন্য কর্মবিরতি করা হবে বলে ঘোষণা দেয় হয়।

 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *