ধনবাড়ীতে অষ্টম শ্রেণির ছাত্রী ধর্ষণের শিকার, থানায় মামলা

মে ২৪, ২০১৭

আপনি দেখছেন: দেশের খবর >> অন্যান্য সংবাদ, টাঙ্গাইল, নারী ও শিশু, স্থানীয় >> ধনবাড়ীতে অষ্টম শ্রেণির ছাত্রী ধর্ষণের শিকার, থানায় মামলা

আব্দুল্লাহ আবু এহসান, মধুপুর (টাঙ্গাইল): টাঙ্গাইলের ধনবাড়ীতে বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে অষ্টম শ্রেণির স্কুল ছাত্রীকে (১৩) ধর্ষণের অভিযোগে সোমবার ধনবাড়ী থানায় মামলা হয়েছে।

এ ব্যাপারে ধনবাড়ী থানার ডিউটি অফিসার এএসআই মমতাজ খাতুন জানান, গত ১৯ মে শুক্রবার বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে পাটবওলা গ্রামের ইউসুফ আলীর ছেলে আরিফ হোসেন (২০) সর্দার পাড়া গ্রামের আলমগীর হোসেনের বাড়িতে নিয়ে ওই স্কুল ছাত্রীকে ধর্ষণ করে। এ ঘটনায় ধর্ষণের শিকার ওই স্কুল ছাত্রীর মা বাদী হয়ে থানায় অভিযোগ দায়ের করেছেন। এ অভিযোগ তদন্তের দায়িত্ব দেয়া হয়েছে ধনবাড়ী থানার উপ-পরিদর্শক ফারুকুল ইসলামকে।

থানার ডিউটি অফিসার নারী পুলিশ কর্মকর্তা এএসআই মমতাজ খাতুনের কক্ষে ধর্ষণের শিকার ওই স্কুল ছাত্রী ও তার মা জানান, বাবা মারা যাওয়ার পর নানার বাড়িতে থেকে মেয়েটি পড়ালেখা করে। ইউসুফ আলীর ছেলে আরিফ হোসেন (২০) মেয়েটিকে শুক্রবার ও পরদিন শনিবার রাতে বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে ধর্ষণ করে। এ ঘটনায় রোববার রাতে ধনবাড়ী থানায় মামলা করতে গেলে ধনবাড়ী পৌর শহরের মমিন কাঁচ ঘরের মালিক মমিনুল ইসলাম ওরফে মমিন আপোষের কথা বলে কৌশলে থানা থেকে তাদের ফেরত নিয়ে যায়। এই ফাঁকে অভিযুক্ত আরিফকে মমিনুল ইসলাম ভাগিয়ে দিয়েছেন। আমরা এর সঠিক বিচার চাই।

তদন্তকারী অফিসার উপ-পরিদর্শক ফারুকুল ইসলাম জানান, স্কুল ছাত্রী ধর্ষণের অভিযোগ গুরুত্ব সহকারে তদন্ত করা হচ্ছে এবং মেয়েটিকে ডাক্তারি পরীক্ষার জন্য ধনবাড়ী থানার নারী পুলিশ কর্মকর্তা এএসআই মমতাজ খাতুনের হেফাজতে রাখা হয়েছে।

ধনবাড়ী থানার ওসি মজিবর রহমান জানান, মেয়েটি থানা হেফাজতেই আছে।

 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *