ভাতার টাকা থেকে ঘুষ নেয়ার অভিযোগ বাগেরহাটে ইউপি চেয়ারম্যান কারাগারে

মে ২৩, ২০১৭

আপনি দেখছেন: দেশের খবর >> প্রধান খবর, বাগেরহাট, স্থানীয় >> ভাতার টাকা থেকে ঘুষ নেয়ার অভিযোগ বাগেরহাটে ইউপি চেয়ারম্যান কারাগারে

প্রতিনিধি, বাগেরহাট: বাগেরহাট সদর উপজেলার গোটাপাড়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান শেখ শমসের আলীকে (৫৩) অর্থ আত্মসাতের মামলায় কারাগারে পাঠিয়েছে আদালত। সোমবার দুপুরে ইউপি চেয়ারম্যান শমসের আলী বাগেরহাটের মুখ্য বিচারিক হাকিম মো. জিয়া হায়দারের আদালতে হাজির হয়ে জামিন প্রার্থনা করলে আদালত জামিন নামঞ্জুর করে তাকে কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দেন।

সমাজসেবা অধিদপ্তরের দায়ের করা মামলাটি বর্তমানে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক) তদন্ত করছে। চেয়ারম্যান শেখ শমসের আলী বাগেরহাট সদর উপজেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক। তবে চেয়ারম্যান শেখ শমসের আলী শুরু থেকেই ঘুষ গ্রহণের অভিযোগ অস্বীকার করে আসছেন।

গত ১৯ মার্চ বাগেরহাট সদর উপজেলার গোটাপাড়া ইউনিয়নের ৯৭৭ জন বয়ষ্ক, বিধবা ও প্রতিবন্ধীদের মাঝে ভাতার টাকা বিতরণে দুই থেকে তিনশ টাকা ঘুষ গ্রহণ করেন বলে তার বিরুদ্ধে অভিযোগ ওঠে। যার একটি ভিডিও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে ভাইরাল হয়। পরে উপজেলা প্রশাসনের সহকারি কমিশনার (ভূমি) নাজমুল হুদা তদন্তে নেমে চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে ওঠা অভিযোগের সত্যতা পান। এর দুইদিন পর জরুরি সভা করে চেয়ারম্যান শেখ শমসের আলী তার ইউনিয়নের ৪নং ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য ও প্যানেল চেয়ারম্যান শেখ শহিদুল ইসলামকে আগামী তিনমাসের জন্য ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যানের দায়িত্ব দিয়ে ছুটিতে যান। এর এক সপ্তাহ পর ২৬ মার্চ বাগেরহাট সমাজসেবা অধিদপ্তরের উপজেলা সমাজসেবা কর্মকর্তা আবুল মোকাররম মো. ফজলে এলাহী বাদী হয়ে চেয়ারম্যান শেখ শমসের আলীর বিরুদ্ধে বাগেরহাট মডেল থানায় মামলাটি দায়ের করেন।

চেয়াম্যানের আইনজীবী বাহাদুর ইসলাম ও শাহী আলম বাচ্চু বলেন, গোটাপাড়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান ও আওয়ামী লীগ নেতা শেখ শমসের আলীর বিরুদ্ধে সমাজসেবা অধিদপ্তর অর্থ আত্মসাতের একটি মামলা করে। ওই মামলায় আমার মক্কেলকে উচ্চ আদালতের একটি বেঞ্চ ছয় সপ্তাহের জামিন দিয়ে পরবর্তীতে নিম্ন আদালতে হাজির হওয়ার নির্দেশ দেন। সোমবার দুপুরে তিনি জামিন নিতে আদালতে আত্মসমর্পণ করলে আদালত শুনানি শেষে তাকে কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দেন।

 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *