সবজির রোগ দমনে কিশোরগঞ্জে জনপ্রিয় হচ্ছে সেক্স ফেরোমেন ফাঁদ

কিশোরগঞ্জ থেকে মোস্তফা কামাল: কিশোরগঞ্জে সবজির রোগবালাই দমনে জনপ্রিয় হয়ে উঠছে সেক্সফেরোমেন ফাঁদ। সাম্প্রতিক সময়ে কীটনাশকের পরিবর্তে কৃষকরা ‌এ নিরাপদ পদ্ধতির দিকে ঝুঁকছেন কৃষকরা। কুমড়াজাতীয় সবজি যেমন- লাউ, মিষ্টিকুমড়া, চালকুমড়া, শশাকরলা, চিচিংগা, ঝিঙা, কাকরোল এবং বেগুন ক্ষেতে এ পদ্ধতির প্রয়োগ হচ্ছে।

Kishoregnj (Vegitable & Sexferomon Trap Photo)-19-01-15
লাউক্ষেতে পেতে রাখা সেক্স ফেরোমেন ফাঁদ।

সদর উপজেলার স্বল্প দামপাড়া গ্রামের বিভিন্ন লাউক্ষেতে সেক্সফেরোমেন ফাঁদের ব্যবহার বরে মাছিজাতীয় পোকার আক্রমণ রোধ করছেন কৃষকরা। এতে তাদের আর উচ্চমূল্যের কীটনাশক ব্যবহার করতে হয় না।

সবজি চাষি বাহাউদ্দিন জানান,  এবছর তার ৪০ শতাংশে চাষ করা লাউক্ষেত লাউ ধরার সঙ্গে সঙ্গেই একজন ব্যাপারি  পুরো বাগান আগাম কিনে নিয়েছে। তিনি জানান, তার লাভ হয়েছে ২৩ হাজার টাকা। একই এলাকার দুলাল মিয়ার ৮০ শতাংশ জমির লাউক্ষেত থেকে লাভ হয়েছে ৫৫ হাজার টাকা। লাউ মৌসুম শেষ হয়ে গেলে তারা একই জমিতে পেঁপে  চাষ করবেন চাষিরা।

ফল আসার সময় সবজির গায়ে বাগানে মাছিজাতীয় পোকা (ফ্রুট বোরার) ছিদ্র করে ডিম পাড়ে। এরপর ডিম থেকে লার্ভা জন্ম নিয়ে সবজি ছিদ্র করে ফেলে। এ ধরনের পোকার আক্রমণ ঠেকাতে প্লাস্টিকের স্বচ্ছ বয়ামের ভেতর সাবান-পানি দিয়ে বয়ামের ঢাকনা থেকে ভেতরের দিকে সুক্ষ্ম তার বা সুতোয় একটি নারী-মাছির গন্ধযুক্ত হরমোনের পুটলি ঝুলিয়ে দেয়া হয়। এতে পুরুষ মাছি আকৃষ্ট হয়ে দলে দলে এসে বয়ামের ফাঁকা জায়গা দিয়ে ভেতরে ঢুকেই সাবান-পানিতে পড়ে মারা যায়। ফলে মাছি বংশবিস্তার করতে পারে না। এভাবে কৃষকরা কীটনাশক ছাড়াই তাদের জমিতে নিরাপদ সবজি ফলাতে সক্ষম হন।

জেলা কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের উপ-পরিচালক অমিতাভ দাস জানান, কৃষকদেরকে বিষমুক্ত শাক-সবজি উৎপাদনে উদ্বুদ্ধ করার লক্ষ্যে তাদের মাঝে  কৃষি প্রযুক্তি মেলাসহ বিভিন্ন অনুষ্ঠানে বিনামূল্যে সেক্সফেরোমন ফাঁদ বিতরণ করা হয়েছে। কৃষকরা উপকারিতা বুঝতে পেরে এখন নিজেরাই উদ্যোগী হয়ে প্রযুক্তিটি ব্যবহার করছেন।

কিশোরগঞ্জ জেলার ১৩ উপজেলায় সারা বছরই বিভিন্নরকম শাকসবজি উৎপন্ন হয়। নতুন নতুন শাকসবজি বিক্রি করে কৃষকরা বেশ লাভবান হচ্ছে।

জেলা কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর সূত্রে জানা গেছে, শীত মৌসুমে জেলার ১৩টি উপজেলায় প্রায় সাড়ে সাত হাজার হেক্টর জমিতে শাক-সবজির আবাদ হয়।