রায়পুরে পল্লীবিদ্যুতের হয়রানি থেকে বাঁচতে চায় চা দোকানী হারুন

রায়পুর (লক্ষ্মীপুর) থেকে মো. মাহবুবুল আলম মিন্টু: লক্ষ্মীপুরের রায়পুরে পল্লী বিদ্যুতের মিথ্যা ও হয়রানিমূলক মামলা থেকে পরিত্রাণ চায় ক্ষুদ্র ব্যাবসায়ী মো. হারুনুর রশিদ (৩৮)। ঘটনার সময় তিনি উপজেলার বাইরে ছিলেন দাবি করে এ হয়রানি থেকে মুক্তি চেয়েছেন তিনি ও তার পরিবার। সোমবার বিকালে পৌর শহরের একটি অফিসে সাংবাদিকদের মাধ্যমে এ আঁকুতি জানিয়েছেন হারুনের স্ত্রী শাহেদা আক্তার (২৮)।

08

দু’সন্তানসহ হারুনের স্ত্রী শাহেদা আক্তার

শাহেদা সাংবাদিকদের জানান, তাঁর স্বামী মো. হারুন শহরের মীরগঞ্জ সড়কে ক্ষুদ্র চা ও মুদি দোকান দিয়ে পরিবার পরিজন নিয়ে কোনোমতে দিনযাপন করছেন। ২০১৪ সনে পল্লী বিদ্যুৎ অফিসে হামলা ও অগ্নিসংযোগের ঘটনায় দায়েরকৃত মামলার হারুনুর রশিদকে মহল বিশেষ দ্বারা প্ররোচিত হয়ে পল্লী বিদ্যুৎ কর্তৃপক্ষ মামলায় ৩৭ নম্বর আসামি হিসেবে এজাহারভুক্ত করে। মামলার পর গ্রেফতার আতঙ্কে পালিয়ে বেড়াচ্ছে হারুন। ব্যবসা ও আয় রোজগার বন্ধ থাকায় এবং পালিয়ে দিনাতিপাত করায় হারুন পরিবারের এখন চরম দুরবস্থা দেখা দিয়েছে। হারুনের অবর্তমানে সন্তানদের লেখাপড়ার খরচ এবং সংসারের খরচ যোগাতে গিয়ে ধার-দেনায় পরিবারটি আজ নি:স্ব। তারা মামলাটি থেকে পরিত্রাণ পেতে সংশ্লিষ্টদের দৃষ্টি আকর্ষণ করেছেন।

এজাহারভুক্ত আসামি গ্রেফতার অভিযান পুলিশের একটি রুটিন বিষয় উল্লেখ করে মামলাটির তদন্ত কর্মকর্তা এসআই আবুল বাশার বলেন, মামলাটি বর্তমানে অন্য একজন অফিসার তদন্ত করছেন। বদলীজনিত কারণে তিনি স্টেশন ত্যাগ করছেন।