কলাপাড়ার ভাষা সৈনিক উসুয়ে হাওলাদারের মৃত্যু

কলাপাড়া(পটুয়াখালী) থেকে মিলন কর্মকার রাজু: পটুয়াখালীর কলাপাড়া রাখাইন সমাজ কল্যাণ সমিতি ও কলাপাড়া মঙ্গলসুখ মডেল সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রতিষ্ঠাতা ভাষা সৈনিক উসুয়ে হাওলাদার (৮৩) আর নেই। মঙ্গলবার রাত একটায় বার্ধক্যজনিত কারণে পৌর শহরের পুরাতন ষ্টিমার ঘাট সংলগ্ন নিজ বাসায় তিনি মারা যান। তিনি স্ত্রী, এক ছেলে, দুই মেয়েসহ অসংখ্য আত্মীয়-স্বজন রেখে গেছেন। বৃহস্পতিবার কলাপাড়া মহাশ্মশানে তার শেষকৃত্য সম্পন্ন হবে।

KALAPARA PIC-1(01.07.2015).USHEY HAWLADER

ভাষা সৈনিক উসুয়ে হাওলাদার

নিহতের পারিবারিক সূত্রে জানা যায়, ১৯৩২ সালের ডিসেম্বর মাসে তিনি রাঙ্গাবালী উপজেলার ফেলাবুনিয়া গ্রামে জন্মগ্রহণ করেন। ১৯৫২ সালে যখন বরিশাল ব্যাপ্টিষ্ট স্কুলের দশম শ্রেণির ছাত্র তখন “রাষ্ট্রভাষা বাংলা চাই” এ দাবিতে বরিশালের রাজপথে ভাষা আন্দোলনে সামনে থেকে নেতৃত্ব দেন। ভাষা আন্দোলনের কারণে ওই বছর তিনি ম্যাট্রিক পরীক্ষায় অংশ নিতে পারেন নি। তখন থেকেই তিনি ছাত্র ইউনিয়নের রাজনীতির সাথে জড়িয়ে পড়েন। ১৯৫৭ সনের পূর্বে তিনি মুসলিম আওয়ামী যুব লীগের রাজনীতিতে সক্রিয় হন। পরে আওয়ামী লীগ ভেঙ্গে ন্যাশনাল আওয়ামী পার্টি প্রতিষ্ঠার পরে ন্যাপের রাজনীতিতে যোগ দেন এবং দক্ষিণাঞ্চলের সংগঠন গড়ে তোলার দায়িত্ব পালন করেন। ১৯৭০ সালে সাধারণ নির্বাচনে (কলাপাড়া ও আমতলী) নির্বাচনী এলাকায় প্রাদেশিক পরিষদের ন্যাপ ( মুজাফ্ফর) থেকে কুঁড়ে ঘর প্রতীক নিয়ে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেন।

স্বাধীনতার পরে কলাপাড়া ও আমতলীতে ন্যাপের রাজনীতি গ্রাম পর্যায় পৌঁছে দিতে তিনি অগ্রণী ভূমিকা পালন করেন। ১৯৭৫ সনে রাজনৈতিক পট পরিবর্তনের পরে রাজনীতি থেকে কিছুদিন দূরে ছিলেন। পরে আবার তিনি মুজাফ্ফর ন্যাপে সক্রিয় হন। ১৯৯১ সনে বাম রাজনীতিতে ধস নামার পরে তিনি ড. কামাল হোসেনের গণ ফোরামের রাজনীতিতে যোগ দেন। ওইখানেও তিনি মন মননে রাজনীতির সাথে একত্রিত হতে না পেরে ফিরে আসেন ন্যাপের রাজনীতিতে। এখানেও ভাঙন শুরু হলে ক্ষোভে দুঃখে রাজনীতিতে নিক্রিয় হয়ে পড়েন।

রাজনীতি না করলেও রাখাইন আদিবাসীদের স্বার্থ সংরক্ষণ নিয়ে আন্দোলন সংগ্রামে গৌরবময় ভূমিকা পালন করেন। তিনি রাখাইন সমাজ কল্যাণ সমিতির কলাপাড়া উপজেলা কমিটির সভাপতি এবং পঙ্কজ ভট্রাচার্যের নেতৃত্বাতাধীন ঐক্য ন্যাপের উপজেলা কমিটির আহবায়ক ছিলেন।

তার মৃত্যুর খবরে কলাপাড়ার বিভিন্ন স্তরের রাজনৈতিক দল ও সামাজিক-সাংস্কৃতিক সংগঠনের নেতৃবৃন্দ তাঁর বাসভবনে ছুটে যান। তাঁর আত্মার শান্তি কামনা ও পরিবারের সদস্যদের সহানুভূতি জানিয়ে গভীর শোক জানিয়েছেন সংসদ সদস্য আলহাজ্ব মাহবুবুর রহমান, উপজেলা চেয়ারম্যান আবদুল মোতালেব তালুকদার, কলাপাড়া পৌর মেয়র এসএম রাকিবুল আহসান, কমরেড নাসির তালুকদারসহ কলাপাড়া প্রেসক্লাব, মানিকমালা খেলাঘর আসর, মুক্তিযোদ্ধা সংসদ কলাপাড়া কমান্ডসহ বিভিন্ন সামাজিক ও সাংস্কৃতিক সংগঠন।