তাবলিগ জামাতে আত্মগোপন, রাজনগর থেকে মানবপাচারকারী আটক

Intel(R) IPP JPEG encoder [7.0.1026] - Mar 2 2011

আজিজুল ইসলাম, মৌলভীবাজার: রাজনগর উপজেলা থেকে এক মানবপাচাকারীকে আটক করা হয়েছে। ফরিদপুর জেলার সালথা থানার একটি মামলায় রাজনগর থানা পুলিশ মানবপাচারকারী আশরাফ ফকিরকে (৪৫) আটক করে।

সালথা থানার বিষ্ণুদি গ্রামের ইউসুফ ফকিরের ছেলে আশরাফ তাবলিগ জামাতের যোগ দিয়ে আত্মগোপন করেন বলে জানায় পুলিশ। বুধবার আশরাফকে সালথা থানায় হস্তান্তর করা হয়।

পুলিশ সূত্রে জানা যায়, সালথা থানার বাতাগ্রামের আলতাব মাতব্বরের ছেলে মো. রাকিব মাতব্বরকে মালেশিয়া পাঠানোর জন্য মানবপাচারকারী আশরাফ ফকির ১ লাখ টাকা নেন। এপ্রিল মাসের ৩০ তারিখ রাকিব মাতব্বরকে মালেশিয়া পাঠানোর জন্য বাড়ি থেকে নিয়ে যান আশরাফ। এরপর থেকে রাকিব মাতব্বরের আর কোনও খোঁজখবর পাওয়া যায়নি।

এরপর আশরাফ রাকিবের বাবাকে জানায় যে, তার ছেলে থাইল্যান্ডের জঙ্গলে বন্দি আছে। তাকে ছাড়াতে ৩ লাখ টাকা মুক্তিপণ দাবি করেন আশরাফ। আলতাবের পক্ষে ওই টাকা আর পরিশোধ করা সম্ভব হয়নি।

এদিকে তিনমাস পেরিয়ে গেলে এখনও তিনি ছেলের কোনও সন্ধান পাননি। পরে ৭ জুলাই আলতাব মাতব্বর মানবপাচারকারী আশরাফ ফকিরকে প্রধান আসামি করে আটজনের নামে সালথা থানায় মামলা করেন।

সালথা থানার এসআই মো. জিল্লুর রহমানের তথ্যের ভিত্তিতে রাজনগর থানার এসআই আবুল হোসেন তাবলিগ জামাতে যোগ দিয়ে আত্মগোপনে থাকা আশরাফ ফকিরকে আটক করেন। বুধবার রাজনগরে সালথা থানার এসআই মো. জিল্লুর রহমান এসে আসামিকে নিয়ে যান।

মামলা তদন্তকারী কর্মকর্তা সালথা থানার এসআই মো. জিল্লুর রহমান জানান, মো. রাকিব মাতব্বর তিন মাস ধরে নিখোঁজ রয়েছে। তার পিতার কাছে ৩ লাখ টাকা মুক্তিপণ চায় আশরাফ ফকির। এব্যাপারে মামলা হলে তাকে রাজনগর থানা পুলিশের সহায়তায় আটক করা হয়।