দিনাজপুরে ট্রেনের নিচে লাফ দিয়ে একজনের আত্মহত্যা

রতন সিং, দিনাজপুর: দিনাজপুরে ট্রেনের নিচে লাফ দিয়ে বাদশা মিয়া (৫০) নামে এক ব্যক্তি আত্মহত্যা করেছে।

মঙ্গলবার সকালে দিনাজপুর-পার্বতীপুর রেলওয়ে রুটে শহরের শেখপুরা ৮নং রেলঘুন্টির নিকট বাদশা মিয়া (৫০) নামে ওই ব্যক্তি ট্রেনের নিচে লাফ দিলে কাটা পড়ে দ্বিখন্ডিত হয়ে মারা যায়। নিহত ব্যক্তি দিনাজপুর উপশহর ৮নং ব্লকের বাসিন্দা এবং ৮নং রেলঘুন্টি চায়ের দোকানদার।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানায়, মঙ্গলবার সকালে বাদশা মিয়া পরিবারের সদস্যদের সাথে কলহের জের ধরে দিনাজপুর থেকে ঢাকাগামী দ্রুতযান এক্সপ্রেসের নিচে ঝাঁপ দেয়। এতে ঘটনাস্থলেই তিনি মারা যান।

পরে পুলিশ লাশ উদ্ধার করে দিনাজপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের মর্গে পাঠায় । বিকেলে ময়না তদন্ত শেষে নিহতের লাশ পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হয়।

ঐতিহাসিক কান্তজীউ মন্দিরের পবিত্রতা নষ্ট ও পুরোহীতদের মারধরের অভিযোগে ৪ যুবকের কারাদন্ড

দিনাজপুরের ঐতিহাসিক কান্তজীউ মন্দিরের পবিত্রতা নষ্ট ও পুরোহীতদের মারধরের অভিযোগে চার যুবককে দুই মাস করে সশ্রম কারাদন্ড দিয়েছেন ভ্রাম্যমান আদালত।

মঙ্গলবার সকালে দিনাজপুরের কাহারোল উপজেলার ঐতিহাসিক কান্তজীউ মন্দিরে ঢুকে চারজন যুবক মন্দিরের পবিত্রতা নষ্টের চেষ্টা করে। এসময় মন্দিরের পুরোহীতরা তাদের বাধা দিলে তারা পুরোহীতদের মারধর করে।

মন্দির কমিটির পক্ষ থেকে থানায় অভিযোগ করা হলে পুলিশ মন্দির এলাকা থেকে তাদের আটক করে। তারা কাহারোল উপজেলার দ্বীপনগর গ্রামের সফি উদ্দীনের ছেলে সোহানুর রহমান (২২), সামসুদ্দিনের ছেলে আলআমিন (২৩) ও রুস্তম আলীর ছেলে সবুজ আলী (২০) এবং ভাতগাঁও গ্রামের কামরুজ্জামানের ছেলে নাহিদ রহমান (২৩)।

মঙ্গলবার দুপুরে পুলিশ কাহারোল উপজেলা নির্বাহী অফিসার ও ভ্রাম্যমান আদালতের নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট মোহাম্মদ রবিউল ফয়সালের নিকট তাদের সোপর্দ করে। তিনি ভ্রাম্যমান আদালত পরিচালনা করে তাদের দোষী সাব্যস্তে প্রত্যেককে দুই মাস করে সশ্রম কারাদন্ড দেন। বিকেলে দন্ডিত চার জনকে পুলিশ পাহারায় দিনাজপুর জেল কারাগারে পাঠানো হয়েছে।

দিনাজপুরে মন্দির ভাংচুর, বাড়ীতে অগ্নিসংযোগ, ২ জন গ্রেফতার

জমির মালিকানা নিয়ে সংঘর্ষের জের ধরে পার্বতীপুরে হিন্দু পল্লীতে হামলা চলিয়ে তিনটি মন্দিরের প্রতিমা ভাংচুর ও অগ্নিসংযোগের ঘটনায় ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারের মাঝে পরিবার প্রতি ২০ কেজি চাল বিতরন করেছে জেলা প্রশাসক।

এছাড়া মন্দির মেরামতের জন্য জেলা প্রশাসকের পক্ষ থেকে ৪৫ হাজার টাকা বরাদ্দ দেয়া হয়েছে।

গত শনিবার রাত পৌনে ১০টার দিকে উপজেলার রামপুর ইউনিয়নের রঘুনাথপুর ঘাটপাড়া গ্রামে এ তান্ডব চালানো হয়েছে। খবর পেয়ে পার্বতীপুর ও পাশ্ববর্তী বদরগঞ্জ উপজেলার ফায়ার সার্ভিসের দু’টি ইউনিট ঘটনাস্থলে পৌছে আগুন নিয়ন্ত্রনে আনে।

এদিকে আগুন নিভাতে আসা ফায়ার সার্ভিস যাতে হিন্দু পল্লীতে প্রবেশ করতে না পারে এ জন্য পথ রোধ করে রাখে প্রতিপক্ষরা। পার্বতীপুর থানা পুলিশ দ্রুত সময়ের মধ্যে ঘটনাস্থলে পৌছে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে আনে।

রাতেই সহকারী পুলিশ সুপার সুশান্ত সরকার ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে। শনিবার সকালে জেলা প্রশাসক মীর খায়রুল আলম, পুলিশ সুপার রুহুল আমিন, উপজেলা নির্বাহী অফিসার রাহেনুল ইসলাম, উপজেলা আওয়ামী লীগ সভাপতি হাফিজুল ইসলাম প্রামানিকসহ হিন্দু পরিষদের নেতারা ঘাট পাড়ায় পৌছে ক্ষতিগ্রস্থদের সাথে কথা বলেন।

ঘটনার পর গ্রামটিতে অস্থায়ী পুলিশ ক্যাম্প স্থাপন করা হয়েছে।

রবিবার বিকেলে ক্ষতিগ্রস্থ কৃষক অশেক চন্দ্র ও ডালম কুমার পার্বতীপুর মডেল থানায় পৃথক দুটি মামলা করেছেন। পুলিশ হামলাকারীদের মূল হোতা মোজাহার আলী ও জাকির হোসেন নামে দুই জনকে গ্রেফতার করেছে।

পার্বতীপুর থানার ওসি মাহমুদুল আলম জানান, পার্বতীপুরের ঘাটপাড়া গ্রামের অশোক চন্দ্র ডাঙ্গাপাড়া গ্রামের কৃষক মোজাহার আলীর কাছ থেকে তার মা ও নিজের নামে দুটি দলিলে ৯৭ শতক জমি কিনেছিল । তিনি দীর্ঘ দিন থেকে ওই জমি ভোগ দখল করে আসছিলেন।

জমি সংক্রান্ত বিরোধের জের ধরে বৃহস্পতিবার অশোক জমিতে রোপা আমন লাগাতে গেলে উভয় পক্ষের সংঘর্ষ বাঁধে। এতে উভয় পক্ষের ১০ জন আহত হয়।

দিনাজপুর মহিলা কলেজের ছাত্রী স্মৃতি রায় জানান, হামলাকরীদের গ্রামের ভিতর দিয়ে তাদের কলেজে যেতে হয়। তারা প্রতিদিন রাস্তায় কুরুচি পূর্ন কথাসহ নানা ধরনের হুমকী দিত। শনিবার রাতে হামলাকারীরা ৫০-৬০ জন তাদের গ্রামে এসে তান্ডব চালালে তারা আতংকিত হয়ে পড়ে।

পার্বতীপুর হিন্দু বৌধ্য খ্রিষ্টান ঐক্য পরিষদের সাধারন সম্পাদক নীল কান্ত মহন্ত বলেন, বিষয়টি সাম্প্রদায়িক নয়। জমির মালিকানা নিয়েই এ তান্ডব চালিয়েছে মোজাহার ও তার অনুসারীরা। তিনি হামলাকারীদের আইনের আওতায় এনে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবী জানান।

জেলা প্রশাসক মীর খায়রুল আলম বলেন, তিনি গ্রামটি পরিদর্শন করেছেন।ক্ষতিগ্রস্থ মন্দির তিনটি মেরামতের জন্য ৪৫ হাজার টাকা ও ক্ষতিগ্রস্থ পরিবার গুলোকে ২০ কেজি করে চাল বরাদ্দ দেওয়া হয়েছে।