শিশু নির্যাতকদের দ্রুত বিচারের আওতায় আনা হবে: মহিলা ও শিশু বিষয়ক প্রতিমন্ত্রী

হায়দার হোসেন, গোপালগঞ্জ: মহিলা ও শিশু বিষয়ক প্রতিমন্ত্রী মেহের আফরোজ চুমকি বলেছেন, শিশু নির্যাতনকারীদের বিচারের মাধ্যমে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির ব্যবস্থা করা হবে। মহিলা ও শিশু বিষয়ক মন্ত্রণালয় নারী ও শিশুদের অধিকার নিশ্চিত করতে কাজ করে যাচ্ছে। এ বিষয়ে সামাজিক আন্দোলন গড়ে তোলার আহবান জানিয়ে তিনি বলেন, এককভাবে কারো পক্ষে এ কাজগুলো করা সম্ভব নয়, এর সাথে জনগণের সম্পৃক্ততা প্রয়োজন।

বৃহস্পতিবার দুপুরে গোপালগঞ্জের টুঙ্গিপাড়ায় জাতির জনকের মাজারে শ্রদ্ধা নিবেদনশেষে সাংবাদিকদের সাথে আলাপকালে এসব কথা বলেন মন্ত্রী।

state minister for women and children affairs at tungipara
বঙ্গবন্ধু সমাধিসৌধে শ্রদ্ধা জানাচ্ছেন প্রতিমন্ত্রী।

নারী ও শিশু নির্যাতনের ঘটনার বিচার কাজগুলো একটু ধীরগতির হওয়ায় অনেকে বিচার পাওয়া নিয়ে আশংকা করেন – এমন মন্তব্য করে মেহের আফরোজ চুমকি আরো বলেন, অল্প কয়েক দিনের মধ্যে যে ঘটনাগুলো ঘটে গেছে, ওইসব ঘটনার সাথে জড়িতদের ইতিমধ্যে গ্রেফতার করা হয়েছে। এসব ঘটনাগুলোর পরিপ্রেক্ষিতে মহিলা ও শিশু বিষয়ক মন্ত্রণালয় ও সম্পৃক্ত অন্যান্য মন্ত্রণালয়ের সাথে সভা করেছি। বিচার কার্যক্রম যাতে দ্রুত সম্পন্ন করা যায়, সে বিষয়ে আমরা কাজ করছি।

তিনি আরো বলেন, দেশে ভালো মানুষের সংখ্যাই বেশি । গুটিকয়েক খারাপ মানুষ যাতে খারাপ কাজ করতে না পারে, তার জন্য তিনি সকলকে ঐক্যবদ্ধ হওয়ার আহবান জানিয়েছেন।

এর আগে তিনি বঙ্গবন্ধুর সমাধিসৌধের বেদীতে পুষ্পমাল্য অর্পণ, ফাতিহা পাঠ ও বিশেষ মোনাজাতে অংশ নেন।

এসময় অন্যান্যের মধ্যে গোপালগঞ্জের জেলা প্রশাসক মো. খলিলুর রহমান, জেলা মহিলা বিষয়ক কর্মকর্তা মো. মহিউদ্দীন আহমেদ, জেলা শিশু বিষয়ক কর্মকর্তা মো. ফজলুল করিম, টুঙ্গিপাড়া উপজেলা চেয়ারম্যান গাজী গোলাম মোস্তফা, সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান সোলায়মান বিশ্বাস, কালিগঞ্জ উপজেলা চেয়ারম্যান মোয়াজ্জেম হোসেন পলাশসহ আওয়ামী লীগ নেতা-কর্মীরা উপস্থিত ছিলেন।