মংলায় বনদস্যুকে গণপিটুনি দিয়ে পুলিশে দিয়েছে জেলেরা

মংলা (বাগেরহাট) থেকে জাহিবা হোসাইন: আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে সুন্দরবনের নন্দবালা খালে দু’দল বনদস্যুর মধ্যে চলা বন্দুক যুদ্ধের এক পর্যায়ে পালিয়ে যাওয়ার সময় এক দস্যু জেলেদের হাতে ধরা পড়েছে। স্থানীয় জেলেরা ওই দস্যুকে গণপিটুনি দিয়ে পুলিশে দিয়েছে।

Mongla 08-08-15 02 (1)

মংলায় বনদস্যুকে গণপিটুনি দিয়ে পুলিশে দিয়েছে জেলেরা

বন বিভাগ, পুলিশ ও জেলেরা জানায়, আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে শনিবার সকাল ৭টার দিকে পূর্ব সুন্দরবনের চাদপাই রেঞ্জের (মংলা) নন্দবালা খালে বন্দুক যুদ্ধে জড়িয়ে পড়ে বনদস্যু মাস্টার বাহিনী ও শিপন বাহিনী। বন্দুক যুদ্ধের এক পর্যায়ে মাস্টার বাহিনীর সদস্য জাকির ফরাজি (৪২) পালিয়ে যাওয়ার সময় জেলেরা ধাওয়া করে তাকে ধরে ফেলে এবং গণপিটুনি দেয়।

পরে মুমূর্ষ অবস্থায় পুলিশ দস্যু জাকিরকে দুপুরে স্থানীয় স্বাস্থ্য কমপ্লেক্্ের ভর্তি করে। তার শরীরে ৪/৫টি ছররা গুলির চিহৃ রয়েছে। বনদস্যু জাকির মংলার গাববুনিয়া এলাকার ওসমান ফরাজির ছেলে। এ বিষয়ে চাদপাই রেঞ্জের সহকারী বন সংরক্ষক মো: বেলায়েত হোসেন বলেন, নন্দবালা খালে দু’দল বনদস্যুর মধ্যে গোলাগুলির সময় মাস্টার বাহিনীর সদস্য জাকির পালিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করলে জেলেরা তাকে ধরে পিটুনির পর পুলিশের কাছে দেয়। মংলা থানার সেকেন্ড অফিসার মনজুর এলাহী বলেন, আটক জাকিরের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণের প্রক্রিয়া চলছে।