শেরপুর পৌরসভার চারু ভবনে স্থাপিত হচ্ছে পৌর জাদুঘর

হাকিম বাবুল, শেরপুর: শেরপুর অঞ্চলের ইতিহাস-ঐতিহ্য, আদি নিদর্শন, পুরাকীর্তি, মুক্তিযুদ্ধের ইতিহাস ও স্থাপনা সংরক্ষণের লক্ষ্যে শেরপুরে পৌর জাদুঘর স্থাপনের উদ্যোগ নিয়েছে শেরপুর পৌরসভা। এ লক্ষে বুধবার দুপুরে শেরপুর পৌরসভা মিলনায়তনে পৌর পরিষদ ও স্থানীয় সুধীবৃন্দ মতবনিমিয় সভা করেছেন।

sherpur-pic-1-pourasobha-charu-bhabon

শেরপুর পৌরসভার চারু ভবন|

পৌরসভার মেয়র গোলাম মোহাম্মদ কিবরিয়ার সভাপতিত্বে মতবিনিময় সভায় অন্যান্যের মাঝে বক্তব্য রাখেন প্যানেল মেয়র আতিকুর রহমান মিতুল, ইতিহাস পরিষদের অধ্যক্ষ আখতারুজ্জামান, প্রেসক্লাবের সাবেক সভাপতি গোলাম মোস্তফা, ডায়াবেটিক সমিতির সভাপতি সমাজকর্মী রাজিয়া সামাদ ডালিয়া, চেম্বার সভাপতি মো. মাছুদ, মুক্তিযোদ্ধা সংসদের ডেপুটি কমান্ডার মোয়াজ্জেম হোসেন সুরুজ, সাংবাদিক হাকিম বাবুল, পৌর সচিব আবু লায়ের মো. বজলুর রহমান প্রমুখ।

সভায় শেরপুর পৌরসভার চারু ভবনকে জাদুঘর হিসেবে গড়ে তোলার ঘোষণা দেন পৌর মেয়র। এজন্য শেরপুরবাসীর সহায়তা কামনা করে যার কাছে যা কিছু নিদর্শন আছে তা দিয়ে এবং তথ্য দিয়ে সহায়তা করে পৌর জাদুঘরকে সমৃদ্ধ করার আহবান জানান। তিনি বলেন, ঐতিহ্যবাহী চারু ভবনের চারটি কক্ষকে চারটি গ্যালারি করে একটিতে পৌরসভার ইতিহাস-ঐতিহ্য, আরেকটিতে মুক্তিযুদ্ধের নিদর্শন, অন্যটিতে শেরপুর সংক্রান্ত প্রকাশনা এবং অন্যটিতে শেরপুর অঞ্চলের সাধারণ তথ্যাবলি ও নিদর্শন দিয়ে সাজানো হবে। আগামী বছরের ২৬ মার্চ জাদুঘর দর্শণার্থীদের জন্য উন্মুক্ত করা হবে।

এ সময় সভায় উপস্থিত সুধীবৃন্দ এজন্য একটি পরিচালনা কমিটি গঠন ও প্রাথমিকভাবে পৌরসভার কর্মচারিদের মধ্য হতে একজন কিউরেটর ও দু’জন সহকারি নিয়োগ দিয়ে জাদুঘরের কাজ শুরু করার পরামর্শ দেন। জাদুঘরের জন্য নিদর্শন সংগ্রহে বহুল প্রচারের জন্য পত্র-পত্রিকা, ইলেক্ট্রনিক মিডিয়া, ক্যাবল অপারেটর, ফেসবুক, ইন্টারনেটে প্রচারণা, পোস্টারিং এবং মাইকিং করার পরামর্শ দেওয়া হয়।

Be the first to comment on "শেরপুর পৌরসভার চারু ভবনে স্থাপিত হচ্ছে পৌর জাদুঘর"

Leave a comment

Your email address will not be published.


*


This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.