দিনাজপুরে মিথ্যা মামলায় গ্রেফতারকৃতদের মুক্তির দাবি, মন্ত্রীর বিরুদ্ধে নানা অভিযোগ

রতন সিং, দিনাজপুর: দিনাজপুরে পুলিশী নির্যাতন ও মিথ্যা মামলা দায়েরের প্রতিবাদে এবং গ্রেফতারকৃতদের মুক্তির দাবিতে ২৬ জানুয়ারি প্রধানমন্ত্রীর কাছে স্মারকলিপি পেশ ও মানববন্ধন কর্মসূচি ঘোষণা করেছে খানসামা উপজেলা সদর উন্নয়ন বাস্তবায়ন কমিটি। সংবাদ সম্মেলনে অভিযোগ করা হয়,  পুলিশী নির্যাতনে ৪টি গ্রাম পুরুষশুন্য এবং পুলিশের গ্রেফতার বাণিজ্য চরম আতঙ্কের সৃষ্টি করেছে। তারা পররাষ্ট্রমন্ত্রী এমএইচ মাহমুদ আলীর বিরুদ্ধেও নানা অভিযোগ করেন।

রোববার সকালে দিনাজপুর প্রেসক্লাব মিলনায়তনে খানসামা উপজেলা সদর উন্নয়ন বাস্তবায়ন কমিটির আয়োজনে সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন কমিটির সদস্য শফিক আহম্মেদ পরাগ। তিনি লিখিত বক্তব্যে বলেন, খানসামাবাসীর প্রাণের দাবি খানসামা ডিগ্রি কলেজকে জাতীয়করণকে উপেক্ষা করে পররাষ্ট্রমন্ত্রী এমএইচ মাহমুদ আলী নিজের ভাগিনাকে কয়েক দিন আগে যে কলেজে তিনি চাকুরি দিয়েছেন সেই কলেজকে জাতীয়করণের ঘোষণা দিয়েছেন যা খানসামাবাসী মেনে নিতে পারছেনা। তার এই ঘোষণার প্রতিবাদে খানসামাবাসী আন্দোলন-সংগ্রাম করছে, পররাষ্ট্রমন্ত্রীর আত্বীয়করণের সিদ্ধান্তে  ফুঁসছে খানসামার সাধারণ মানুষ এবং হতবাক হয়ে পড়েছে তারা।

তারা অভিযোগ করে বলেন, খানসামা-চিরিরবন্দরের মানুষ জানে পররাষ্ট্রমন্ত্রী মাহমুদ আলী এবং তার ছোট ভাই শামীম এলাকার উন্নয়নে কোন অবদান না রাখলেও নিজেদের ভাগ্যের উন্নয়ন করছেন ঠিকই। খানসামার মানুষ এবং দলীয় নেতাকর্মীরা আজ পদে পদে লাঞ্চিত হচ্ছেন। মন্ত্রী এবং তার ছোট ভাই শামীমের বিরুদ্ধে কেউ কোন ধরনের মন্তব্য করতেই সাহস পান না।

সংবাদ সম্মেলনে বলা হয়েছে, পররাষ্ট্রমন্ত্রী এবং তার ছোট ভাই শামীমের অপকর্মের কারণেই খানসামাবাসী ফুঁসে উঠেছে এবং তাদের দমনে মন্ত্রী সরকারি শক্তির অপপ্রয়োগ ঘটাচ্ছেন দলীয় নেতাকর্মীদের উপর, এতে দলের ভাবমূর্তিও ক্ষুন্ন হচ্ছে। মিথ্যা মামলা করায় কয়েকটি গ্রাম পুরুষশুন্য হয়ে পড়েছে। তাদের পরিবার পরিজন আতঙ্কের মধ্যে থাকায় প্রধানমন্ত্রীর হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন।

সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন খানসামা উপজেলা সদর উন্নয়ন বাস্তবায়ন কমিটির সদস্য নজরুল ইসলাম, সোহানুর রহমান মোঃ রুমেনুর রহমান, মাহমুদুল হাসান, সৈকত শাহ ও জয়নাল আহম্মেদ প্রমুখ।

Be the first to comment on "দিনাজপুরে মিথ্যা মামলায় গ্রেফতারকৃতদের মুক্তির দাবি, মন্ত্রীর বিরুদ্ধে নানা অভিযোগ"

Leave a comment

Your email address will not be published.


*


This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.