কৃষিপণ্যের ন্যায্য মূল্য পাচ্ছে না কৃষক: কৃষি সচিবের সাথে মতবিনিময়

স্বপন কুমার কুন্ডু, ঈশ্বরদী (পাবনা): মধ্যস্বত্বভোগীদের জন্য কৃষকরা কৃষিপণ্যের ন্যায্য মূল্য পাচ্ছেন না।

রবিবার বাংলাদেশ ফার্মাস এ্যাসোসিয়েশনের কৃষকদের সাথে কৃষি সচিব শ্যামল কান্তি ঘোষের মতবিনিময়কালে কৃষকরা একথা বলেন।

তারা বলেন, মধ্যস্বত্বভোগীদের কারণে কৃষকদের উৎপাদিত পণ্যের ন্যায্য মূল্য নেই। রোদ বৃষ্টিতে ভিজে পন্য উৎপাদন করলেও এর মূল্য কম হওয়ায় তাদের লোকসান গুনতে হচ্ছে।

ishwardi-14,6,15
কৃষি পণ্যের খামার পরিদর্শন করছেন কৃষি সচিব ।

তারা আরও বলেন, ঈশ্বরদীতে প্রচুর পরিমাণে ফলমূল ও সবজি উৎপাদিত হয়। কিন্তু সেগুলো সংরক্ষণের জন্য নেই আধুনিক হিমাগার। তারা কৃষি পণ্য সংরক্ষণের জন্য ঈশ্বরদীতে আধুনিক হিমাগার ও ট্রেনিং সেন্টারের দাবি জানান।

শ্যামল কান্তি ঘোষ বলেন, এদেশে ব্যক্তি পর্যায়ে কৃষি পণ্য উৎপাদন হয়ে থাকে, তারপরও কৃষকদের সার-কীটনাষক ও বিভিন্ন কৃষি পণ্য সামগ্রীতে ভর্তূকী দিয়ে আসছে সরকার।

তিনি কৃষকদের দাবিগুলো সরকারের উচ্চ পর্যায়ের সভায় উপস্থাপনের আশ্বাষ দেন।

ঈশ্বরদীর বাংলাদেশ ফার্মাস এ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি মো. শাহজাহান আলীর সভাপতিত্বে¡ অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের মহাপরিচালক এ জেড এম মমতাজুল করিম, বাংলাদেশ চিনি ও খাদ্য শিল্পের চেয়ারম্যান একেএম দেলোয়ার হোসেন, ও বাংলাদেশ ইক্ষু গবেষণা ইনস্টিটিউটের মহাপরিচালক ড.মুহাম্মদ খলিলুর রহমান ।

সভায় শতাধিক কৃষক উপস্থিত ছিলেন। এর আগে কৃষি সচিব কৃষকদের উৎপাদিত বিভিন্ন ধরনের ফলমূল, সবজি ও কৃষি পণ্যের খামার পরিদর্শন করেন।

সভায় কৃষকদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন বঙ্গবন্ধু জাতীয় কৃষি পদক প্রাপ্ত কৃষক জাহিদুল ইসলাম, বঙ্গবন্ধু জাতীয় কৃষি পদক প্রাপ্ত কৃষক আমিরুল ইসলাম, আনসার আলী ডিলু, মুরাদ আলী মালিথা, সেলিম হোসেন ও আমজাদ হোসেন মালিথা।